1. admin@dainikmanobadhikarsangbad.com : admin :
মহানবীর পোশাক দেখতে ইস্তাম্বুলে মানুষের ঢল - দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ| ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ| শীতকাল| সোমবার| ভোর ৫:২২|
শিরোনামঃ
পাইকগাছা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও পরিবারের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন। খাগড়াছড়ির তিন সাংবাদিকসহ সাতজনের বিরুদ্ধে ইউপি চেয়ারম্যানের মামলা বঙ্গবন্ধু কন্যা এ দেশের গরীব অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন-এমপি বাবু। রামগড় জোন কর্তৃক রংতুলি একাডেমিতে বাদ্যযন্ত্র বিতরণ সাতক্ষীরা ডায়াবেটিক এ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত  তালার কুমিরায় গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় আদালতে মামলা সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত দেশের প্রথম পাতালরেল নির্মাণকাজের উদ্বোধন রামগড়ে নগদ অর্থসহ শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন কুজেন্দ্র লাল এমপি ডুমুরিয়ায় বর্ণাঢ্য ও বর্নিল আয়োজনে এশিয়ান টিভির ১০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

মহানবীর পোশাক দেখতে ইস্তাম্বুলে মানুষের ঢল

আন্তর্জাতিক খবরঃ
  • Update Time : শনিবার, এপ্রিল ২৩, ২০২২,
  • 415 Time View

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যবহৃত পোশাক দেখতে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে হিরকা-ই শেরিফ মসজিদে হাজারো মানুষ ভিড় করেছেন। করোনাভাইরাস মহামারিতে বন্ধ হয়ে যাওয়া এই প্রদর্শনী দুই বছর পর শুক্রবার (২২ এপ্রিল) আবারও শুরু হয়েছে।

তুরস্কের গণমাধ্যম ডেইলি সাবাহ বলছে, হযরত উওয়াইস আল-কারনিকে (রা.) পোশাকটি হযরত মুহাম্মদ (সা.) উপহার হিসেবে পাঠিয়েছিলেন। তার বংশধররা এটি দীর্ঘ ১৪শ বছর ধরে যত্ন সহকারে সংরক্ষণ করে আসছেন। রাসুল (সা.) এর পোশাক দেখতে ওই মসজিদে হাজারো মানুষ ভিড় করছেন।

তুরস্কে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় গত দুই বছর ধরে এই পোশাকের প্রদর্শনী বন্ধ ছিল। করোনাভাইরাসের প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে আসায় দুই বছর পর পুনরায় পোশাক প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হয়েছে। মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এ নিদর্শন শুধু পবিত্র রমজান মাসে প্রদর্শন করা হয়।

শুক্রবার জুমার নামাজের আগে কিছু মানুষকে মসজিদের ভেতরে কাচে মোড়ানো বাক্সে পোশাকটি দেখার সুযোগ দেওয়া হয়। বাইরে আলাদা আলাদা সারিতে হাজারো নারী ও পুরুষ মসজিদের ভেতরে প্রবেশের জন্য অপেক্ষায় ছিলেন।

মানুষের এত ভিড় থাকার পরও কারও কাছ থেকে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। দর্শনার্থীরা ইসলামের সবচেয়ে পবিত্র ব্যক্তিত্বের ব্যবহৃত পোশাক দেখার সুযোগ পেয়ে খুশি। অনেকেই পোশাকটি দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন। আবার কেউ কেউ নামাজ পড়েন। ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত পোশাকটির প্রদর্শনী চলবে।

পোশাক দেখতে মসজিদে আসা লায়লা কাহরামান বলেন, রাসুল (সা.) এর ব্যবহৃত পোশাক দেখতে পাওয়ার খুশিতে গতরাতে আমি ঘুমাতে পারিনি। আমি গত দুই বছর ধরে এটা দেখার অপেক্ষায় ছিলাম।

লাইলা তার ৯ বছর বয়সী ছেলে ওমর ফারুককে নিয়ে মসজিদে এসেছিলেন রাসুল (সা.) এর ব্যবহৃত পোশাক দেখতে। সে বলে, আমি রাসুলকে (সা.) অনেক ভালোবাসি। আমি এখানে আসতে পেরে খুবই খুশি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি। © প্রকাশক কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত -২০২২