1. admin@dainikmanobadhikarsangbad.com : admin :
লালপুরের গ্রীণভ্যালী পার্কে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় - দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ| ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ| গ্রীষ্মকাল| বৃহস্পতিবার| সকাল ৬:৫৩|
শিরোনামঃ
তালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন যারা সাতক্ষীরায় বড় ভাইয়ের অস্ত্রের আঘাতে প্রান গেল ছোটভাইয়ের তালায় প্রায় ৪ কোটি টাকা মূল্যের এলএসডিসহ এক মাদক ব্যবসায়ী  আটক নির্বাচন সুষ্ঠু করতে যাহা কিছু করার প্রয়োজন তাই করা হবে: সাতক্ষীরায় নির্বাচন কমিশনার তালায় শারীরিক প্রতিবন্ধী আলামিনের হারানো ভ্যান খুঁজে দিলেন এ এস আই আনিছুর রহমান শ্যামনগরে কথিত সীমানা পিলার বিক্রির সময় আটক-৫ তালায় জলবায়ু পরিবর্তন ও অভিযোজন প্রকল্পের অবহিতকরণ কর্মশালা সাতক্ষীরার আশাশুনিতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত মানব পাচার প্রতিরোধে স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ বোদায় হাইওয়ে পুলিশ সেবা সপ্তাহ পালন ২০২৪

লালপুরের গ্রীণভ্যালী পার্কে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : শুক্রবার, জুলাই ১৫, ২০২২,
  • 812 Time View

ঈদুল আজহায় উপলক্ষে নাটোরের লালপুর উপজেলার গ্রীনভ্যালী পার্কে নানা বয়সের মানুষের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিশু-কিশোরসহ পরিবার নিয়ে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীর উপস্থিতি সবচেয়ে বেশি।

এদিন গ্রীণভ্যালী পার্কে গিয়ে দেখা যায়, সকালে দর্শনার্থীর সংখ্যা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উপস্থিতিও বাড়তে থাকে। দুপুরের দিকে টিকিট কাউন্টারগুলোতে দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। উপস্থিতির মধ্যে সবচেয়ে বেশি শিশু-কিশোর এবং তাদের সঙ্গে আসা অভিভাবকরা।

পার্ক কতৃপক্ষ জানায়, ৩৮ জন পরিচালকের সম্মিলিত উদ্যোগে ২০১৯ সালের ২৫ জানুয়ারি উদ্বোধন হয় এই গ্রীন ভ্যালী পার্ক লিঃ প্রায় ৪০ একর জমির ওপরে প্রতিষ্ঠিত সবুজেঘেরা অপরুপ সুন্দর্য, নয়নাভিরাম লেক, ঝর্ণা, অত্যন্ত মনোরম পরিবেশ, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যেমন্ডিত পার্কটি যেন সৌন্দর্যের লীলাভূমিতে পরিনত হয়েছে। তাইতো প্রতিদিনই এই অপরুপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে পরিবার পরিজন নিয়ে হাজারো মানুষ সবুজ সৌন্দর্যের লীলাভূমি খ্যাত গ্রিনভ্যালি পার্কটিতে আসছেন। যান্ত্রিকতার একঘেঁয়েমি থেকে প্রকৃতির কাছাকাছি কোলাহলমুক্ত পরিবেশে সময় কাটাতে লোকজন প্রতিনিয়ত ছুটে আসছেন এখানে।

সরেজমিনে পার্কটি ঘুরে দেখা গেছে, দেশের বিভিন্নস্থান থেকে দলে দলে বিনোদন প্রেমীরা পার্কে আসছেন। সকাল থেকেই বিনোদনপ্রেমীদের ভীড় ছিলো চোখে পড়ার মতো। স্পীডবোট, প্যাডেল বোট, বুলেট ট্রেন, মিনি ট্রেন, নাগরদোলা, পাইরেট শীপ, ম্যারিগোরাউন্ড, হানি সুইংসহ বিভিন্ন রাইডের আনন্দে মেতে ছিলো আগতো দর্শনার্থীরা।

এ সময় পার্কে ঘুরতে আসা দর্শনার্থী আনিকা ইসলাম বলেন, ‘উত্তরবঙ্গের মধ্যে সর্বচেষ্ট পার্ক গ্রিনভ্যালি। গ্রিনভ্যালি নামের সঙ্গে পার্কটির মিল রয়েছে। আমি জীবনে অনেক পার্ক ঘুরেছি এতো সুন্দর মনোরম পরিবেশর নয়নভীরাম পার্ক আর দেখিনি। আগামীতে আমি আবারো আসবে।

পরিবারসহ ঘুরতে আসা আরেক দর্শনার্থী আব্দুর রশিদ মাস্টার বলেন, সবুজে ঘেরা পার্কটি অত্যান্ত মনোরোম পরিবেশ আমার ভীষন ভালো লেগেছে। স্বপ্নপুরীর চেয়েও অনেক ভালো লেগেছে। পার্কটির ওয়েবপুলে গোসল করে সবচেয়ে বেশি মজা পেয়েছি।

পার্কের পরিচালক প্রশাসন শামসুজ্জোহা বলেন, দেশের উষ্ণতম ও সর্বনিম্ন বৃষ্টিপাত এলাকা হিসেবে দেশবাসীর নিকট পরিচিত লালপুর। তার সাথে আরেকটি মাত্রা যোগ হয়েছে গ্রীনভ্যালী পার্ক।

পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নুরীয়া পারভীন বলেন, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পর্যটনের জগতে লালপুরকে প্রতিষ্ঠা করার প্রয়াসই গ্রীনভ্যালী পার্ক লিমিটেড। পার্কের লভ্যাংশের সিংহভাগ ব্যয় হবে সমাজকল্যাণ মূলক কর্মকান্ডে। পর্যায়ক্রমে প্রতিষ্ঠা করা হবে আন্তর্জাতিক মানের বিদ্যালয়, শিশু পরিবার, বৃদ্ধাশ্রম ও হাসপাতাল প্রভৃতি।

পার্কটির জনসংযোগ কর্মকর্তা এএম রায়হান বলেন, সবুজে ঘেরা পার্কটিতে স্পীডবোট, প্যাডেল বোট, বুলেট ট্রেন, মিনি ট্রেন, নাগরদোলা, পাইরেট শীপ, ম্যারিগোরাউন্ড, হানি সুইং, পিকনিক স্পট, শ্যুটিং স্পট, এ্যাডভেঞ্চার রাইডস, কনসার্ট এন্ড প্লে-গ্রাউন্ড, নিজস্ব বিদ্যুৎ সুবিধা, নামাজের সু-ব্যবস্থা, সিকিউরিটি সার্ভিসের ব্যবস্থা, ডেকোরেটর সুবিধা, গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থা, ক্যাফেটেরিয়া, শপ কর্ণার, সভা-সেমিনার এর জায়গা, আবাসিক ব্যবস্থাসহ নানা ধরনের সুবিধা রয়েছে। এই কারনে পার্কটি নির্মল ও সবুজে ঘেরা পরিবেশে বিনোদনের অনন্য স্থান হিসেবে ইতিমধ্যেই দেশবাসী কাছে সুপরিচিত হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি। © প্রকাশক কতৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত -২০২২

You cannot copy content of this page